• ঢাকা
  • |
  • বৃহঃস্পতিবার ২৩শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ রাত ০২:০৪:২৪ (08-Dec-2022)
  • - ৩৩° সে:

বাজপাখির জন্য মধ্যপ্রাচ্য তৈরী হয়েছে ব্যয়বহুল হাসপাতাল


বুধবার ৯ই নভেম্বর ২০২২ বিকাল ০৪:২১



বাজপাখির জন্য মধ্যপ্রাচ্য তৈরী হয়েছে ব্যয়বহুল হাসপাতাল

ছবি : সংগৃহীত

পশু হাসপাতাল বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে বহু। তবে শুধুমাত্র একটি প্রাণীর চিকিৎসার জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল সচরাচর চোখে পড়ে না। কাতারে আছে এমনই ভিন্নধর্মী হাসপাতাল। রাজধানী দোহায় সৌক ওয়াকিফ মেডিকেল সেন্টারে শুধুমাত্র বাজপাখির চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এই বিশেষায়িত হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পাশাপাশি জটিল অস্ত্রপচার, রক্ত পরীক্ষা, আইসিইউ ও ইনকিউবেটরের মতো সুচিকিৎসাও পায় পাখিগুলো। খবর ভয়েজ অব আমেরিকার।

বাজপাখি কাতারে অত্যন্ত শৌখিন একটি প্রাণী। দেশটিতে ধনকুবেরদের পোষ্য হিসেবে প্রথম পছন্দ এই পাখি। তাই বিশেষায়িত এই হাসপাতালে অত্যন্ত ব্যয়বহুল চিকিৎসায় অর্থ ব্যয়ে কোনো কার্পণ্য করেন না মালিকরা। বিশেষায়িত এই হাসপাতাল ঘিরে রয়েছে পর্যটকদের আকর্ষণও।

সৌক ওয়াকিফ মেডিকেল সেন্টারের পশু চিকিৎসক মুহাম্মদ বাবর বলেন, বাজ হচ্ছে সাহসিকতা, আত্মসম্মান আর সৌন্দর্যের প্রতীক। মধ্যপ্রাচ্য জুড়েই বাজপাখিকে প্রশিক্ষণ দেয়ার এই প্রথা প্রচলিত রয়েছে। এই পাখি দিয়ে এখানকার জনপ্রিয় খেলাও হয়। পাখিগুলোকে অতিরিক্ত প্রশিক্ষণ দেয়ার কারণে এদের চিকিৎসারও প্রয়োজন হয়। তাই এখানে বাজপাখির জন্য অনেকগুলো হাসপাতাল রয়েছে।

মধ্যপ্রাচ্য জুড়েই বাজপাখির রয়েছে আলাদা মর্যাদা। জাতীয় পাখি ছাড়াও হাজার বছরের আরব সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে বিবেচনা করা হয় এই পাখিকে। মূলত একটা সময় আরব বেদুইনরা প্রশিক্ষণ দিয়ে শিকার ধরতে পারদর্শী করে তুলতো পোষা বাজকে। কালের বিবর্তনে সে প্রথা এখন পরিণত হয়েছে জনপ্রিয় খেলায়। এখন বাজপাখি পোষাকে দেখা হয় শেখদের আভিজাত্যের অংশ হিসেবেও।

মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশেই রয়েছে বাজপাখির জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল। সবচেয়ে বড় চিকিৎসা কেন্দ্রটি আছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় আবুধাবি ফ্যালকন হাসপাতালটি।

মন্তব্য করুনঃ


সর্বশেষ সংবাদ