• ঢাকা
  • |
  • শুক্রবার ২১শে মাঘ ১৪২৯ সকাল ০৬:১৬:১১ (03-Feb-2023)
  • - ৩৩° সে:

০৯:০৬ পিএম, ২০ জানুয়ারী ২০২৩


ক্যাটাগরি

বাংলাদেশ
রাজনীতি
বিএনপি

জিয়াউর রহমানকে কারো সঙ্গে তুলনা করতে হয় না: গয়েশ্বর


শুক্রবার ২০শে জানুয়ারী ২০২৩ রাত ০৯:০৬



জিয়াউর রহমানকে কারো সঙ্গে তুলনা করতে হয় না: গয়েশ্বর

ছবি সংগৃহীত

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, জিয়াউর রহমানকে কারো সঙ্গে তুলনা করতে হয় না। কারণ জিয়াউর রহমানের তুলনা তিনি নিজেই।

কারো সঙ্গে তুলনা করে ছোট অথবা জিয়াউর রহমানকে বড় করার প্রয়োজন হয় না। কারণ জিয়াউর রহমান জনগণের নেতা, জনগণই তার ভাই, জনগণই তার বোন। তিনি বিলাসিতায় বিশ্বাস করতেন না এবং অপচয়েও বিশ্বাস করতেন না।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচ তলায় এক আলোকচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৮৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার  (জাসাস) উদ্যোগে এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

গয়েশ্বর রায় বলেন, জিয়াউর রহমান একমাত্র ব্যক্তি যিনি রাষ্ট্রপতি হওয়ার পরও গ্রামে গ্রামে হেঁটেছেন। কৃষক শ্রমিকের সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন, শিশুদের কোলে নিয়ে আদর করেছেন। নারীদের পাশে গিয়ে তাদের দুঃখ-দুর্দশা জানতে চেয়েছেন। অর্থাৎ তিনি সমাজে দেখতে চেয়েছেন মানুষ কোন অবস্থায় রয়েছে। জিয়াউর রহমান কর্মঠ ছিলেন, যার ফলে কেউ কর্মহীন থাকতে পারেনি।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান নিজে সৎ ছিলেন বলেই তার মন্ত্রিসভায় কোনো অসততা ঠাঁই পায়নি। আজকে অসততা ও দুর্নীতির মধ্য দিয়ে দেশটা শেষ প্রান্তে চলে গেছে। দেশের অবস্থা খুবই খারাপ। মেঘা প্রকল্পের আড়ালে অর্থাৎ উন্নয়নের আড়ালে দুর্নীতি। উন্নয়নটা ধারাবাহিক প্রকল্প এবং এটা জনগণের টাকায়। সুতরাং এখানে বাহবা পাওয়ার সুযোগ নেই। বাহবা তখনই পাওয়া যায় যখন সততার সঙ্গে কাজ করা হয়।

গয়েশ্বর বলেন, আজকে উন্নয়নের নামে মানুষের পকেট লুটপাট হচ্ছে। যদি লুটপাট না হয় উন্নয়নের নামে তাহলে ১০ লাখ কোটি টাকা কীভাবে বিদেশে পাচার হলো? সুতরাং এখান থেকে স্পস্ট বোঝা যায়। কারা লুটপাট করছে?

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমরা শপথ করি জিয়ার মতো চলব, জিয়ার মতো গড়ব, জিয়ার পথেই চলব। তাহলে জনগণ বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রহণ করবে।

তিনি বলেন, আমাদের যে আন্দোলন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন। এই সরকারের পতন ঘটিয়ে জনগণের মালিকানা তাদের হাতে যদি ফিরিয়ে দিতে পারি, তাহলে জনগণ একদিন আমাদেরকে পুরস্কৃত করবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, জাসাসের কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব জাকির হোসেন রোকন, ঢাকা উত্তরের যুগ্ম আহ্বায়ক ওমর ফারুক, জাহিদ হোসেন ইমন, হোসেন শাহিন রাব্বানী, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

মন্তব্য করুনঃ


সর্বশেষ সংবাদ