• ঢাকা
  • |
  • বৃহঃস্পতিবার ১৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯ রাত ১০:৩৪:০৫ (01-Dec-2022)
  • - ৩৩° সে:

রাবি ছাত্রলীগের সম্মেলন: শীর্ষ দুই পদের প্রার্থীদের কয়েকজনের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ


বৃহঃস্পতিবার ১০ই নভেম্বর ২০২২ দুপুর ০১:৩৪



রাবি ছাত্রলীগের সম্মেলন: শীর্ষ দুই পদের প্রার্থীদের কয়েকজনের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

ছবি : সংগৃহীত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সম্মেলনকে ঘিরে শীর্ষ দুই পদের বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন ৯৪ জন!

আগামী ১২ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলনের আগে তারা সবাই কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশনা অনুযায়ী জীবনবৃত্তান্ত জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে কয়েকজনের বিরুদ্ধে ছাত্রত্ব না থাকা কিংবা পরীক্ষায় প্রক্সি জালিয়াতির অভিযোগ আছে। বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির সাবেক নেতারা মনে করেন, অভিযুক্ত ও অনুপ্রবেশকারীদের নেতৃত্বে আসা ঠেকানোই আসন্ন সম্মেলনের মূল চ্যালেঞ্জ।

দীর্ঘ ৬ বছর পর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলন হতে যাচ্ছে। এ সম্মেলনে সভাপতি পদে ২২ আর সাধারণ সম্পাদক পদে ৭২ জনসহ মোট ৯৪ জন লড়তে চান শীর্ষ দুই পদের জন্য। নজিরবিহীন সংখ্যক এ পদপ্রত্যাশীদের কারো কারো বিরুদ্ধে ছাত্রত্ব না থাকার অভিযোগ রয়েছে। পরীক্ষায় প্রক্সি জালিয়াত চক্র পরিচালনার অভিযোগে অভিযুক্ত নেতাও প্রার্থী হয়েছেন। সংগঠনের সাধারণ নেতাকর্মীদের প্রত্যাশা, স্বচ্ছ ইমেজের নেতৃত্ব আসুক রাবিতে।

নেতৃত্ব প্রত্যাশীদের তালিকা দীর্ঘ হওয়ায় অনুপ্রবেশকারীদের নিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে নেতাদের। এ প্রসঙ্গে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরান খান নাহিদ বলেন, কিছু অনুপ্রবেশকারীও আছে এখানে যারা পদপ্রত্যাশী।

সংগঠনের সাবেক নেতারা মনে করেন, একদিকে দীর্ঘসময় তাদের মূল দল রাষ্ট্রক্ষমতায়, অন্যদিকে মূল দলের স্থানীয় নেতৃত্বের প্রভাব- এই দুয়ে মিলে সঠিক নেতৃত্ব নির্বাচনে সতর্কতা অবলম্বন জরুরি।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টু বলেন, কর্মী বৃদ্ধি করতে গিয়ে অন্যদলের অনুপ্রবেশকারীদের নিয়ে শক্তি বৃদ্ধি করছে অনেকেই। এটা পরবর্তীতে দেশের জন্য বুমেরাং হয়ে আসে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক কামরুজ্জামান চঞ্চল বললেন- এখানে নেতা হলে হলে মিনিমাম কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক অথবা যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক বা সহ-সভাপতি এ ধরনের নেতা যারা থাকে তারাই নেতৃত্বে আসার যোগ্য বলে আমি মনে করি।

এখন আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত এই প্রাক্তন ছাত্রনেতারা মনে করেন, নেতৃত্ব নির্বাচনে বাইরের প্রভাব যতো কম থাকবে ততোই মঙ্গল।

মন্তব্য করুনঃ


সর্বশেষ সংবাদ