• ঢাকা
  • |
  • সোমবার ১০ই আষাঢ় ১৪৩১ সকাল ০৯:০৮:২৯ (24-Jun-2024)
  • - ৩৩° সে:

বেনজীরের বিরুদ্ধে টাকা সরানোর প্রমাণ পেয়েছে দুদক


শুক্রবার ৩১শে মে ২০২৪ সকাল ১১:৩৯



বেনজীরের বিরুদ্ধে টাকা সরানোর প্রমাণ পেয়েছে দুদক

ছবি: সংগৃহীত

চ্যানেল এস ডেস্ক: 

ব্যাংক হিসাব ফ্রিজ বা অবরুদ্ধ করার আগেই পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যরা কয়েকশ কোটি টাকা ব্যাংক থেকে সরিয়ে নেওয়ার প্রমাণ পেয়েছে দুদক। তাদের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নামে ৩৩টি অ্যাকাউন্টের ব্যংকে থাকা অধিকাংশ অর্থ উঠিয়ে নেওয়ার সন্ধান পাওয়া গেছে। 

আদালত থেকে নির্দেশনা দেওয়ার আগেই ওই সব হিসাব থেকে বিশাল অঙ্কের টাকা উত্তোলনের আলামত পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুসন্ধান টিম। তবে টাকার পরিমাণ বলতে পারেনি তারা। অনুমান করা হচ্ছে টাকার পরিমাণ কয়েকশ। আজ বৃহস্পতিবার (৩০ মে) দুদকের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

দুদকের ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘সাবেক আইজিপির অনেকগুলো অ্যাকাউন্ট ফাঁকা করা হয়েছে। হিসাব ফ্রিজের তথ্য হয়ত আগেই টের পেয়েছিলেন তিনি। বেনজীর আহমেদ, তার স্ত্রী জীশান মীর্জা, দুই মেয়ে ও তাদের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন অ্যাকাউন্টের সন্ধান মিলেছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে সঞ্চয়ী, মেয়াদি, এসএনডি আমানত হিসাব। কিছু ঋণ হিসাবও আছে। অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ কার্যকরের আগেই আমানত হিসাব থেকে নগদ টাকা সরিয়ে ফেলা হয়েছে।’ 

দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, জব্দ করা ব্যাংক অ্যাকাউন্টের টাকা আগে তুলে রাখলেও নতুন করে কোনো ব্যাংকে জমা দিলে তা আইনের আওতায় আসবে। 

গত ২৩ মে আদালতের আদেশে বেনজির আহমেদের ৮৩টি দলিলের সম্পত্তি ও ৩৩টি ব্যাংক হিসাব জব্দের নির্দেশ দেয় আদালত। ২৬ মে আদালত বেনজীর ও তার পরিবারের সদস্যদের নামের ১১৯টি জমির দলিল, ২৩টি কোম্পানির শেয়ার ও গুলশানে চারটি ফ্ল্যাট জব্দের আদেশ দেন। 

দুদক গত ২২ এপ্রিল বেনজীর, তার স্ত্রী জিসান মির্জা, দুই মেয়ে ফারহিন রিশতা বিনতে বেনজীর ও তাশিন রাইসা বিনতে বেনজীরের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান শুরু করে। দুদকের প্রধান কার্যালয়ের উপপরিচালক হাফিজুল ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিশেষ অনুসন্ধান টিম অভিযোগটি অনুসন্ধান করছে। টিমের অন্য দুই সদস্য হলেন—সহকারী পরিচালক নিয়ামুল আহসান গাজী ও জয়নাল আবেদীন। 

মন্তব্য করুনঃ


সর্বশেষ সংবাদ