• ঢাকা
  • |
  • বৃহঃস্পতিবার ২৩শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ রাত ০৩:১০:৩৬ (08-Dec-2022)
  • - ৩৩° সে:

কাতার বিশ্বকাপ: গ্রুপ বি এর ফেভারিট কারা?


শনিবার ১২ই নভেম্বর ২০২২ বিকাল ০৩:০৪



কাতার বিশ্বকাপ: গ্রুপ বি এর ফেভারিট কারা?

ছবি : সংগৃহীত

বাজছে কাতার বিশ্বকাপের দামামা। কে জিতবে বিশ্বকাপ? কোন গ্রুপ থেকে কারা যাবে পরের রাউন্ডে তা নিয়ে ঝড় উঠছে চায়ের আড্ডায়। গ্রুপ পর্বের দল পরিচিতি, শক্তি, দুর্বলতা ও সম্ভাবনা নিয়ে যমুনা নিউজের ধারাবাহিক এ আয়োজনে আজ জানাবো গ্রুপ-‘বি’ এর দল পরিচিতি। এই গ্রুপ থেকে পরের রাউন্ডে যাওয়ার লড়াইয়ে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে ইংল্যান্ড। বাকি এক জায়গার জন্য হাড্ডহাড্ডি লড়াই হবে তিন দল ইরান, যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েলসের মধ্যে।

কাতার বিশ্বকাপের বি গ্রুপের চারটি দল হলো যথাক্রমে- ইংল্যান্ড, ইরান, যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েলস।

নিশ্চিত ভাবেই এই গ্রুপ থেকে রাউন্ড অব সিক্সটিনে যাবার লাড়াইয়ে ফেভারিট ইংল্যান্ড। ১৯৬৬ সালে সবশেষ বিশ্বকাপজয়ী ইংলিশ ভক্তরা আবারেও স্লোগান ধরেছেন “ফুটবল কামিং হোম”। তবে ইংল্যান্ডের সাম্প্রতিক ফর্ম খুব একটা আশা জাগানিয়া নয়। বিশেষ করে রক্ষনভাগ খুবই দুর্বল থ্রি লায়ন্সদের। সবশেষ ৬ ম্যাচে জয়হীন ইংল্যান্ড। হেরেছে তিন ম্যাচে ড্র হয়েছে বাকি তিন ম্যাচ। যার মধ্যে দুই ম্যাচে হাঙ্গেরির কাছে ৫ গোল খেলেছে ইংলিশরা। তবে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপে ভালো করার স্বপ্ন টিকিয়ে রেখেছে দলটির তারকায় ঠাসা আক্রমন ভাগ। হেরি কেইন, স্টারলিং, রাশফোর্ড, গ্রিলিশ, ফোডেনের মতো ইপিএল মাতানো ফরোয়ার্ডরা আছে দলটিতে। যারা বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে ইউরোপ অঞ্চলে সর্বাধিক ৩৯ গোল করেছেন। সেই সাথে রিচ, মেডিসন, মাউন্ড, হ্যান্ডারসনের মতো পরীক্ষিত মিডফিল্ডাররা দলটিকে রাখছেন অন্যতম ফেরভারিটের কাতারে।

র‍্যাঙ্কিংয়ের বিচারে ইংল্যান্ডরে পরই বি গ্রুপের দ্বিতীয় সেরা দল ১৬ নম্বরে থাকা যুক্তরাষ্ট্র। যদিও বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে দলটির পারফরম্যান্স ছিলো মিশ্র। কানাডা ও মেক্সিকোর পর ৩য় দল হিসেবে উত্তর আমেরিকা থেকে কাতারের টিকেট পেয়েছে ইউএসএ। যুক্তরাষ্ট্রের মূল শক্তি তাদের উইঙ্গার। ক্রিশ্চিয়ান পুলেসিক, জিওভানি রেইনা, ব্রেন্ডেন অ্যারোনসনের মতো ইউরোপের সর্বোচ্চ পর্যায়ে খেলা ফুটবলাররা আছেন দলটিতে। তবে যুক্তরাষ্টের বড় দুর্বলতাও ওই আক্রমভাগেই। মানসম্মত স্ট্রাইকারের অভাব খুব ভোগাচ্ছে কোচ গ্রেগ বারহাল্টার দলকে।

এই গ্রুপ থেকে দুই নম্বর দল হিসেবে পরের রাউন্ডে যাবার অন্যতম দাবিদার ইরান। এশিয়া অঞ্চল থেকে গ্রুপ সেরা হয়ে টানা তৃতীয় বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে পার্সিয়ানরা। ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ের ২০ নম্বর দল ইরানের হেড কোচ হিসেবে আবারও ফিরেছেন পর্তুগিজ কার্লোজ কুইরোজ। ৪-৩-৩ ফরমেশনে খেলা দলটির মূলশক্তি তাদের রক্ষণ। রক্ষণকে প্রাধান্য দিয়ে গেম প্ল্যান সাজান দলটির কোচ। পক্ষান্তরে সেটি আবার ইরানের বড় দুর্বলতাও বটে। রক্ষণে জোর দিতে গিয়ে গোল সংকটে পড়ে দলটি। ইরানের সবচেয়ে বড় তারাকা স্ট্রাইকার মেহেদি তারেমি। তার বর্তমান ক্লাব পোর্তোর জার্সিতে ৭৮ ম্যাচে তার ৪২ আর ইরানের হয়ে ৬০ ম্যাচে ২৮ গোল প্রমাণ দেয় তার দক্ষতার।

গ্রুপের আরেক দল ওয়েলস। প্লে অফে ইউক্রেনকে হারিয়ে ১৯৫৮ সালের পর আবারও বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে দলটি। টিম স্প্রিরিটকে বলা হয় ওয়েলসের মূল শক্তি। দলের প্রাণ ভোমরা দুই সেরা তারকা গ্যারেথ বেল ও অ্যারন র‍্যামজে। কাউন্টার অ্যাটাকে খেলতে পছন্দ করে ওয়েলস। সেই সাথে বড় বড় জায়ান্টদের বিপক্ষে পজেশন ধরে রেখে খেলার রেকর্ড আছে বেলের দলের। দলটির বড় দুর্বলতা ব্যাকাপ ফুটবলারের অভাব।

মন্তব্য করুনঃ


সর্বশেষ সংবাদ