• ঢাকা
  • |
  • বুধবার ১৯শে মাঘ ১৪২৯ সকাল ০৬:২৫:০৭ (01-Feb-2023)
  • - ৩৩° সে:

কুমিল্লা থেকে সাঁতরে নরসিংদী গেলেন পল্লী চিকিৎসক


বুধবার ১৪ই সেপ্টেম্বর ২০২২ সকাল ০৮:৫৫



কুমিল্লা থেকে সাঁতরে নরসিংদী গেলেন পল্লী চিকিৎসক

কুমিল্লা থেকে সাঁতরে নরসিংদী গেলেন পল্লী চিকিৎসক

কুমিল্লা থেকে নরসিংদী সদরের শেখ হাসিনা সেতু এলাকা পর্যন্ত টানা ১২ ঘণ্টা নদীতে সাঁতরে আলোচনায় এসেছেন পল্লী চিকিৎসক বকুল সিদ্দিকী। নদীপথে ২১০ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে নতুন রেকর্ড করলেন ৪২ বছর বয়সী এই পল্লী চিকিৎসক। সাঁতারে বিশ্বরেকর্ড করার ইচ্ছা তার।

বুধবার (১৩ জুলাই) কুমিল্লা জেলাধীন হোমনা উপজেলার কোনাবাড়ী মেঘনা নদী ঘাট থেকে ভোর চারটা এক মিনিটে সাঁতার শুরু করেন এই সাঁতারু। একই দিন বিকেল চারটা ১০ মিনিটে নরসিংদী শহরের নাগরিয়াকান্দি এলাকায় মেঘনা নদীতে অবস্থিত শেখ হাসিনা সেতুর প্রান্তে এসে শেষ হয় তার সাঁতার।

সাঁতারু এবং তার সাঁতার ঘিরে মেঘনা নদীতে বিভিন্ন নৌকা ও স্পিডবোটে শত শত উৎসুক জনতা উল্লাস প্রকাশ করেন। পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে এ সাঁতার আয়োজন করেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও আওয়ামী লীগ নেতা ফাহিম সিদ্দিকী।

নরসিংদীর সেতু প্রান্তে পৌঁছালে সাঁতারু বকুল সিদ্দিকীকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি নরসিংদী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আফতাব উদ্দিন ভূইয়া, বিশেষ অতিথি নরসিংদী জেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক ও নরসিংদী পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র মো. রিপন সরকার।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদর আসনের এমপির পক্ষে তার পিএস মো. নাজমুল হাসান পিন্টু, জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তৌহিদা সরকার রুনা, আলোকবালী ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দীপু, হাইরমারা ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনসহ অন্যান্য অতিথিরা।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বকুলের দীর্ঘপথ সাঁতার কেটে পাড়ি দেওয়ার বিষয়টি নরসিংদীর চরাঞ্চলের আলোকবালি ইউনিয়নসহ আশপাশে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

বকুলের বন্ধু আলামিন জানান, বকুল ছোটবেলা থেকেই এলাকার একজন নামকরা সাঁতারু ছিলেন। তিনি সব সাঁতার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বিজয়ী হতেন। তিনি বরাবরই প্রথম হওয়ার গৌরব অর্জন করে আসছেন। বকুল ১৯৯৬ সালে দালালের খপ্পরে পড়ে পাড়ি জমান প্রবাসে। ওই সময় থাইল্যান্ড থেকে সাগর পথে ১৮ ঘণ্টা সাঁতরিয়ে মালয়েশিয়ায় যান তিনি। সেই থেকে তার মনোবল আরো বেড়ে যায়। পরে দেশে ফিরলে বন্ধুমহল ও এলাকারবাসীর উৎসাহে বকুল সাঁতার প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। আনুষ্ঠানিকভাবে প্রথমে ২০১৯ সালে বর্ষাকালে ১৭ কিলোমিটার সাঁতরে এলাকায় সবার নজরে আসেন। পরে পর্যায়ক্রমে ২০২০ সালের ২৫ আগস্ট টানা ৫ ঘণ্টা ১০ মিনিটে ১২ কিলোমিটার নদীপথ সাঁতার কেটে এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন।

২০২১ সালের ৩ আগস্ট মেঘনা নদীতে টানা ৬ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার সাঁতার কাটেন তিনি। সকাল ৬টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার সাহেবনগর থেকে সাঁতার শুরু করে দুপুর ১২টার মধ্যে ৪০ কিলোমিটার সাঁতরিয়ে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার মনিপুরা ঘাটে এসে পৌঁছান।

বকুল আলোকবালী ইউনিয়নের পল্লী চিকিৎসক সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে।

 

মন্তব্য করুনঃ


সর্বশেষ সংবাদ